ফেসবুক থেকে ৫০ হাজার ডলার পাবেন বাংলাদেশের রাজীব আহমেদ

ফেসবুক থেকে ৫০ হাজার ডলার পাবেন বাংলাদেশের রাজীব আহমেদ
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের (ফেসবুক) কমিউনিটি লিডার হিসেবে ৫০ হাজার ডলার পাবেন বাংলাদেশে ফেসবুক গ্রুপ Search English এর প্রতিষ্ঠাতা ও ই-কমার্স সংগঠন ই-ক্যাবের সাবেক প্রেসিডেন্ট রাজীব আহমেদ।

গতকাল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ পাঁচজন নির্বাচিত কমিউনিটি লিডার ও বিভিন্ন দেশের ১০০ জন ফেলো ও তরুণ অংশগ্রহণকারী নির্বাচন করেছে।বাংলাদেশ থেকে ফেসবুকের ফেলো  নির্বাচিত হয়েছেন রাজীব আহমেদ। স্থানীয় প্রকল্পের জন্য পাঁচজন কমিউনিটি লিডার ১০ লাখ ডলার করে পাবেন। বাকিরা ৫০ হাজার ডলার করে পাবেন।

ফেসবুক কমিউনিটি লিডারশিপ প্রোগ্রাম পেজে ওই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকের কমিউনিটি লিডারশিপ প্রোগ্রামের লক্ষ্য হচ্ছে সামাজিক বিভিন্ন উদ্বেগ কমানো থেকে শুরু করে সামাজিক বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে উৎসাহ দেওয়া।

এ বিষয়ে রাজীব আহমেদ জানান- বিভিন্ন মিডিয়ায় ৫০ হাজার ডলার অংকটাকে অনেক বেশি হাইলাইট করা হচ্ছে। আমি স্পষ্ট করতে চাই, এ অর্থ আমি রাজিব আহম্মেদকে গাড়ি, বাড়ি কিংবা ঘুরে বেড়ানোর জন্য দেয়া হচ্ছে না। সার্চ ইংলিশ ফেসবুক গ্রুপ যাতে আরো বড় হয় এবং আরো বেশিসংখ্যক মানুষ যাতে এ গ্রুপে সম্পৃক্ত হয়ে ইংরেজি শিখতে ও অন্যকে শেখাতে সহায়তা করতে পারে, সেজন্য দেয়া হয়েছে। এখন আমাকে একটা পরিকল্পনা দিতে হবে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সেটা পর্যালোচনা শেষে ফিডব্যাক দেবে এবং চূড়ান্ত পরিকল্পনা অনুযায়ী অর্থসহায়তা দেয়া ও ব্যয় করা হবে। আমি বরাবরই গ্রামের মানুষদের এ গ্রুপে সম্পৃক্ত করতে চেয়েছি। ভবিষ্যতেও তা-ই করা হবে।

এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে লিডারশিপ প্রোগ্রামের ঘোষণা দেয় ফেসবুক।
তারা বলে, এ প্রোগ্রামের মাধ্যমে কমিউনিটি লিডারদের প্রশিক্ষণ, সমর্থন ও অর্থ-সাহায্য দেওয়া হবে।
গতকাল সোমবার ফেসবুকের এক ব্লগ পোস্টে বলা হয়, তারা পুরো বিশ্ব থেকে ছয় হাজার আবেদন পেয়েছিল।

বিশ্বের ৪৬টি দেশে এ কর্মসূচি চালু করেছে ফেসবুক ।
এ বছর ফেসবুক মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করছে—এমন সমালোচনার মুখে পরীক্ষামূলকভাবে এ সেবা চালু হলো।

ফেসবুকের কমিউনিটি পার্টনারশিপের প্রধান দীপ্তি দোশি বলেন, ‘এ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের নাম ঘোষণা করতে পেরে আমরা রোমাঞ্চিত। যারা এতে অংশ নিয়েছেন, তারা ফেসবুকের কমিউনিটি তৈরি করেছেন। তাদের সম্মান জানাতে পেরে আমরা গর্বিত।’

Share this post