জামাল খাশোগিকে হত্যার স্বীকারোক্তি সৌদির, বরখাস্ত ৫, আটক ১৮

জামাল খাশোগিকে হত্যার স্বীকারোক্তি সৌদির, বরখাস্ত ৫, আটক ১৮

১৮ দিনের নাটকীয়তা শেষে অবশেষে দূতাবাসের ভিতরেই সাংবাদিক জামাল খাশোগির
তুরস্কের ইস্তাম্বুলে কনস্যুলেটের অভ্যন্তরে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করল সৌদি আরব।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে সৌদি সরকার বলেছে,
দূতাবাসের মধ্যে সাক্ষাতকারীদের সঙ্গে হাতাহাতি থেকেই এ হত্যাকান্ড।
এমন স্বীকারোক্তি দিয়ে দেশটি এক গোয়েন্দা কর্মকর্তাসহ অন্তত ৫ জন কে বরখাস্ত
আর ১৮ জন কে গ্রেপ্তার করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।
পাঁচজনের মধ্যে রয়েছেন সৌদি সরকারে উপদেষ্টা সৌদ আল-কাহতানি ও
গোয়েন্দা সংস্থার সহকারি প্রধান আহমেদ আসিরি।
রিয়াদের প্রাথমিক তদন্তে এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে জানানো হয়েছে।

এর গত ২ অক্টোবর বিয়ের জন্য সরকারি নথিপত্র যোগাড় করতে ইস্তাম্বুল দুতাবাসে ঢুকে নিখোঁজ হন
সৌদি রাজতন্ত্রের কঠোর সমালোচক জামাল খাশোগি।

সৌদি আরবের পাবলিক প্রসিকিউটরের বিবৃতি,
প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে ২ অক্টোবর সৌদি দুতাবাসে সাক্ষাতকার গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে
প্রথমে কথা কাটাকাটি ও পরে হাতাহাতির জেরে দেশটির নাগরিক জামাল খাশোগির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

খাশোগি ইস্যুতে শুরুতে কঠোর অবস্থান নিলেও আবার ও সুর পাল্টেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

খাসোগজিকে হত্যার দায় স্বীকার নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বিবৃতিতে বলেন,
‘ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিকের সাথে যা ঘটেছে তা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।
তবে সৌদি আমাদের ঐতিহাসিকভাবে ঘনিষ্ট মিত্র ছিল।
খাশোগি হত্যায় কে, কবে, কখন, কোথায় জড়িত ছিল এই সব কিছু খুঁজে বের করেই
আমরা সৌদি আরবের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বিবেচনা করবো।
তবে কোন ধরণের আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে দেয়ার আগে আমাকে সৌদি যুবরাজের সাথে আলাপ করতে হবে।

Share this post